Sustain Humanity


Monday, January 23, 2017

#Comrade Ramchandran Missing from Howrah Station #Families refused compensation by Government #ভাঙ্গড় এই মুহুর্ত Palash Biswas

#Comrade Ramchandran Missing from Howrah Station
#Families refused compensation by Government
#ভাঙ্গড় এই মুহুর্ত
Palash Biswas
Image may contain: 7 people, people sitting and child

সরকারের দেওয়া লোকদেখানি দুই
লক্ষ টাকা নিলেন না
ভাঙ্গড়ে শহীদ
মফিজুলের পরিবার।
লড়াই চলুক।
Anand Swarup Verma informe on his FB wall:
Com K N Ramachandran, General Secretary, CPI (ML) Red Star, who reached Howrah railway station by around 5 PM on 22nd January 2017. He is missing since then. All attempts to contact comrade K N Ramachandran over his mobile phone are in vain. Comrade travelled from Lucknow to Howrah to declare solidarity with the people and the CPI (ML) Red Star comrades who are heroically resisting super imposition of a power grid by Mamata Government at Bhangar in South 24 Parganas district of W. Bengal. The Party suspects the involvement of Mamata's notorious Special Police in comrade's missing and appeal to the communists, progressive democratic forces and like-minded people for their wholehearted solidarity and support at this critical juncture.
It is terrible development and represents Bengal scenario at present under the rule of Maa Mati Manush government.
Comrade Ramchandran has been active in democrat movement in Bengal for last few decades and converse in Bengali very very well despite his South Indian status.
Bhangar Movement is against unabated land grab by Builder Promoter Syndicate mafia in New Kolkata and suburban Kolkata with all the district town.
The recent turmoi was created by this mfai goons who are known leaders of the Ruling Party.They looted land of the people in Muslim dominated area Bhangar and while People`s resistance got momentum there,these antisocial elements known best as TMC muscle Power used the police and RAF as cover and dressed as police the fired indiscriminately,two innocent young boys sacrificed in the violence.
The area has been captured by those anti social elements who have been getting land for builder mafia.Murders,Arson and rapes have been the tools of mass displacement,ethnic cleansing.
The Government and its machinery has done nothing to stop this anarchy and now they brand the leaders of Bhangar uprising as Maoists and CM  Mamata Bannerjee has ordered to arrest the leaders of the movement including the students branding them as Maoists but has not taken any action against those elements who are basically responsible for continuos violence and displacement,unemployment and resultant anger turned into people`s uprising. Mamta has been habitual to brand anyone Maoist since she has got the helms of power.She did not spare women in Kamduni or students or simple boys romthe tribal belt and the hell losing.
With the absconding comrade Ramchandran it is once again the anarchy scenario in Bengal which should be protested and resisted.
One section of media which also supported persecution and repression in seventies, during Nandigram and Singur movement to brand everyone Naxal or Maoist has launched a misinformation campaign.
Meanwhile Paribartan Panthi People`s Singer Pratul Bandopadhyay has wrote a song against this terror but Bengal Civil society has not responded as yet.

ভাঙড় সংঘর্ষে দুই নিরীহ মানুষের গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যুতে আমি শোকস্তব্ধ । তল্লাশির নামে কৃষিজীবিদের ঘরে ঘরে পুলিশের অত্যাচারকে নিন্দা ও ধিক্কার জানাই ।

শাসকদের আজ ভাবার সময় 
আবার শিক্ষা নেবার সময় । 
জনগণের কাছে যাও 
তাদের কথা শুনে নাও, 
কী করতে চাও বুঝিয়ে বলো
তাদের নিয়েই এগিয়ে চলো । 
 সেটাই হল রাস্তা 
মেরুদণ্ডীর অস্থি- সমান 
জনগণের আস্থা ।

জনগণকে তুচ্ছ করে 
চলতে গেলেই যাবে পড়ে 
আম জনতাই নিয়ন্তা 
ইতিহাসের নিয়ম তা ।

প্রতুল মুখোপাধ্যায়, ২১/০১/২০১৭

যারা যারা বাস্তুতন্ত্র ও পরিবেশ রক্ষার প্রশ্ন তুলে ভাঙড়ের আন্দোলনকে ছোট করছেন, তাদের উদ্দেশে তিনটি কথা বলবার আছে ঃ

১) এই প্রশ্নটি আন্দোলনের একমাত্র সূচনা বিন্দু নয়, জনশুনানি না করেই জমি অধিগ্রহণ থেকে শুরু করে জনগণকে কী তৈরি হবে সেই নিয়ে বারে বারে বিভ্রান্ত করা ইত্যাদি একাধিক গুরুত্বপূর্ণ দিক আছে।

২) সরকার পক্ষের সব যুক্তিই সঠিক থাকলে তারা কেন একবারও আন্দোলনকারীদের সঙ্গে বসার প্রয়োজন মনে করল না, উপরন্তু গ্রামগুলির উপর নামিয়ে আনা হল নিদারুণ পুলিশি অত্যাচার, গুলি করে মেরে ফেলা হল দুই যুবককে?

৩) বৈজ্ঞানিক সমীক্ষার দিক দিয়ে বললে তড়িৎ চুম্বক ক্ষেত্র ইত্যাদির সত্যিই কোনও প্রভাব আছে কিনা সেই নিয়ে দুই রকমের মতামতই আছে। সেখানে কোন যুক্তিতে ঘরে বসেই আপনারা বলে দিচ্ছেন অন্তিম সিদ্ধান্ত যে কোনও প্রভাব নেই?

আসলে আপনারাও পক্ষ নিয়ে ফেলেছেন যে। যে পক্ষ গ্রামবাসীদের এত বছরের প্রত্যক্ষ অভিজ্ঞতা থাকা সত্ত্বেও তাঁদের আকাট মূর্খ ছাড়া কিছুই ভাবে না, যে পক্ষ মানুষের দাবিদাওয়ার আন্দোলনগুলিকে অস্বীকার করে, কালিমালিপ্ত করে। সে কারণেই ভাঙড়ে যারা মারা গেছেন তাদের জন্য বিদ্বানসুলভ কুম্ভীরাশ্রু ফেলেও আপনাদের একটা প্রতিবাদের মিছিল বা সমাবেশে দেখা যায় না। 
 একবার ভাঙড়ে যান না--- সমীক্ষা লাগবে না, নিজে হেঁটে আসুন হাই ভোল্টেজ তারের নীচ দিয়ে, কথা বলুন সেখানের গ্রামবাসীদের সঙ্গে। বাস্তুতন্ত্র ও পরিবেশ সম্বন্ধে একটা অভিজ্ঞতা তো হবে। তারপরেই না হয় ফেসবুকটা খুলে আবার নিজের বিজ্ঞতার পরিচয় দেবেন।

শুভদীপ দার wall থেকে

Image may contain: one or more people and people standing

-- 

Pl see my blogs;


Feel free -- and I request you -- to forward this newsletter to your lists and friends!